রেশমি চুড়ি/Reshmi Chudi

মেয়েটির নাম মহুয়া। নারীর অধিকার নিয়ে সে অতিশয় বাড়াবাড়ি করে। বাবা শরফুদ্দিন একবার তাকে পাত্রস্থ করতে চাইলে সে নানান কান্ডকীর্তি করে বিয়েটা ভেঙে দেয়। মহুয়া আবহমান কালের চিরাচরিত রেওয়াজ ভেঙে ফেলে। সে কয়েকজন বান্ধবীকে সাথে নিয়ে বিয়ের আগেই পাত্র ও পাত্রের বাড়ি-ঘর দেখতে যায়।
পাত্রের বাড়ি গিয়ে মহুয়া তার হবু শ্বশুর-শাশুড়ি, দেবর-ননদির ইন্টারভিউ নিল। তাতে ভাশুর জা কেউ বাদ গেল না। এখানে শেষ হলে একটা কথা ছিল। সে হবু শাশুড়ির হাতের রান্না খাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করলো। বেচারি শাশুড়ি পাত্রের মা হয়ে যে পাপ করেছেন, তার মাশুল চুকিয়ে দিলেন। নিজ হাতে হবু পুত্রবধূর জন্যে রাঁধলেন, বেড়ে খাওয়ালেন। তাতেও শাশুড়ি বেচারির পাপ মোচন হলো না। মরিচ কম, লবণ বেশি ইত্যাদি বলে শাশুড়ি-মাকে পুনর্জন্ম দেখিয়ে ছাড়ল মহুয়া।
মহুয়া এভাবে অনেক বড়-বড় ঘর ফিরিয়ে দিয়েছে। ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, ধনাঢ্য পাত্র ছেড়ে শেষমেশ বিয়ে করেছে এক গৃহশিক্ষককে। ব্যতিক্রমী স্বভাব ছিল তার।
মহুয়াকে অন্য এক যুবক ভালোবাসতো। তার নাম শাদাব। অনেক ধন-সম্পদের মালিক। সে একজন গডফাদার। মহুয়াকে ভালোবাসতে গিয়ে শাদাব তার সমুদয় সম্পদ পথকলি ট্রাস্টে দান করে দেয়। একসময় সে নিজেই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে দাঁড়ায়। নিজের পাপের প্রায়শ্চিত্ত করে। তা কঠিন প্রায়শ্চিত্ত।

এভাবে উপন্যাসের মূলকাহিনী এগিয়েছে।

একটি সুন্দর প্রফুল্ল রুচিশীল মন গঠনে বা নির্মল চিত্ত বিনোদনে একটা উপন্যাস বা একটা বই নিঃসন্দেহে ভূমিকা রাখে। সেদিক থেকে এই উপন্যাস কতটুকু সফল, সুধী পাঠকেরাই ভালো বলতে পারবেন।
কোনো প্রকার পরামর্শ থাকলে ফেসবুক ইনবক্সে জানালে খুশি হবো। এই লেখায় আত্মপ্রচারের কোনো ধৃষ্টতা থাকলে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।
ভালো বই হোক নিত্য সঙ্গী।

৳ 200

About The Author

মােহাম্মদ কাসেম

মােহাম্মদ কাসেম

মােহাম্মদ কাসেম
চট্টগ্রাম জিলার সাতকানিয়া থানার এওচিয়া গ্রামে ১৯৫৪ সালে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। বাবা একজন প্রখ্যাত ইসলামী চিন্তাবিদ ছিলেন। বাবার নাম মৌলানা খলিলুর রহমান। মা মাবিয়া খাতুন। আরবী, ফার্সি, উর্দু ভাষার চর্চা ছিল বাড়িতেই। পুঁথি সাহিত্যে দাদার অসাধারণ পান্ডিত্য ছিল। বাংলা সাহিত্যের দিকে ঝোঁক ওখান থেকেই। সত্তরের শেষ দিকে তিনি এক নাট্যাঙ্গন গড়ে তােলেন এবং মঞ্চ নাটকে জড়িত থাকেন বেশ কিছুকাল । পরে কিছুকাল মাধ্যমিকে শিক্ষকতা করেন। পাশাপাশি আশির দশকে তিনি মুদ্রণ-ব্যবসায়ের সাথে জড়িত হন। নব্বই এর পর থেকে দীর্ঘকাল তিনি আরব উপসাগরীয় দেশে শ্রম-মন্ত্রণালয়ে প্রবাসী অধিকার সংরক্ষণ বিভাগে অনুবাদকের দায়িত্ব পালন করেন। বিভিন্ন ভাষা-সংস্কৃতি, শিল্প-সাহিত্যের সাথে পরিচিত হন। তিনি একজন বহুভাষাবিদ।প্রথম সাহিত্যে-কর্ম “সােনাই বউ” উপন্যাস দিয়ে সাহিত্যে যাত্রা শুরু হয়। তার কয়েকটা উপন্যাস ও কাব্যগ্রন্থ শীঘ্রই ধারাবাহিক প্রকাশের অপেক্ষায় আছে।।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “রেশমি চুড়ি/Reshmi Chudi”

Your email address will not be published. Required fields are marked *