মহেশখালীর আদিনাথ মন্দিরের ইতিকথা

৳ 100

About The Author

মুহাম্মদ আবদুল বাতেন

মুহাম্মদ আবদুল বাতেন

স¬র্পিল বাঁকে পথ চলা, কৌতুহলোদ্দীপক,শেকড়-স¬ন্ধানী লেখক মুহাম্মদ আব্দুল বাতেন এর জন্ম মানিকগঞ্জ জেলার শিবালয় উপজেলার অম্বয়পুর গ্রামে,১৫ মে, ১৯৫৫ খ্রিস্টব্দে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাসে বি.এ(অনার্স) এম.এ ডিগ্রি অর্জন করেন। শ্রদ্ধেয় অধ্যাপক ড. আব্দুল সম্যক জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা অর্জন করেন।প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরে যোগদানের পর রূপবানমুড়া, ভোজরাজার বাড়ি, পাহাড়পুর বৌদ্ধ বিহার এবং ঢাকার লালবাগ কেল্লা (দলনেতা) খননে অংশ গ্রহণ সহ মানিকগঞ্জ জেলার প্রত্নতাত্ত্বিক জরিপ সম্পাদন ও রাজস্ব বাজেটে স্থানান্তরে সহায়তাসহ, বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠী,সাঁওতাল,ওঁর-াও,বুনো,বাগদি,গারো,ম¬্রো,রাখাইন প্রভৃতির তথ্য, আলোকচিত্র ও উপকরণ সংগ্রহ করেন। তাঁর উপজাতি সম্পর্কে প্রকাশিত হয়েছে।তিনি National Encyclopedia of Bangladesh (Banglapedia)'র অন্যতম নিবন্ধকার।
চাকুরী জীবনে তিনি ১৯৯৭-এ লালবাগ কেল্লায় অনুষ্ঠিত ব্রিটেনের ব্র‍্যাডফোর্ড ইউনিভার্সিটি ও বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের যৌথ উদ্যোগ আয়োজিত Archaeologial Exploration/Survey Received Training on Non- Destructive Survey on Geo-Physique Joint program- এর অংশ গ্রহণ ক¬রেন। এছাড়া,২০০১ সালে তিনি ঐতিহ্য ও উত্তরাধিকার বিষয়ক জরিপ ও সংরক্ষণ বিষয়েও বিশেষ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।
জনাব বাতেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগ এ্যালামনি ইতিহাস সমিতি, ইতিহাস পরিষদ, বাংলা একাডেমি, Asiatic Society of Bangladesh, international Association of Historians of Asia এবং বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির জীবন সদস্য। বর্তমানে তিনি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন, প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর, জাতিতাত্ত্বিক যাদুঘর, আগ্রাবাদ, চট্টগ্রাম-এ প্রথম শ্রেণীর একজন কর্মকর্তা

বলাকা প্রকাশনঃ

ভূ-প্রকৃতির বৈচিত্রময় লীলাভুমির সবুজ পাহাড়ে ঘেরা সমুদ্রস্নাত বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিনে প্রাকৃতিক সৌন্দর্জের এক অনিন্দু দ্বীপ মহেশখালী। দ্বীপের উত্তরে কুতুব্দিয়া চ্যানেল, পুর্বে মহেশখালী চ্যানেল, পশ্চিম ও দক্ষিনে বঙ্গোপসাগর।
শুধু প্রাকৃতিক সোন্দর্জেই নয় ঐশ্বররয ও ঐতিহ্য সম্ভারেও বিস্ময়কর। সামুদ্রিক মাছ, শুটকি, লবণ, সোনালী চিংড়ী,কাঁকড়া, রূপচান্দা, পোপাছড়ি ও সোনাদিয়ার বিখ্যাত শুটকি ও মিস্টিপান ইত্যাদির ঐশ্বর্যের সম্ভার। এতদব্যহীত ঐতিহ্য আধিনাথ মন্দির স্বীপ্টিকে আরো গৌরবময় মহিমা দান করেছে। বাংলার রাজনৈতিক ঐক্যের সুবাদে হিন্দু – মুস্লিম স্তাপত্য রীতির ব্যঞ্জন ময় সমন্বয়ে গড়ে উঠেছে আধিনাথ মন্দির।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “মহেশখালীর আদিনাথ মন্দিরের ইতিকথা”

Your email address will not be published. Required fields are marked *