ত্রিপুরা লোককাহিনী

লোককাহিনী প্রতিভাবান প্রাচীন লোকদের অনুপম সাহিত্য সৃষ্টি, যা অলিখিত এবং চারণ কবিদের মুখে মুখে মাটি ও মানুষের হৃদয়ের গভীরে মুদ্রিত থাকে। লোককাহিনী সাহিত্যের একটি অঙ্গ বলেই একটা জাতির প্রাচীন সভ্যতা ও জীবন সংস্কৃতির প্রতিচ্ছবি এতে প্রতিফলিত হয়। আর তাই লোককাহিনী আদি মানুষের সংস্কৃতির একটা ধারক বাহকও বটে।
ত্রিপুরা জনজাতির বৈচিত্র্যময় জীবন সংস্কৃতির অঙ্গনে লোককাহিনী একটি বিশিষ্ট স্থান দখল করে আছে। ত্রিপুরা জনগোষ্ঠীর হাজার হাজার বছরের ইতিহাস, সভ্যতা, জীবনবোধ ও কৃষ্টিতে লোককাহিনী আপন মহিমায় উদ্ভাসিত।

৳ 200

About The Author

প্রভাংশু ত্রিপুরা

প্রভাংশু ত্রিপুরা

বহুমাত্রিক লেখক, গবেষক প্রভাংশু ত্রিপুরা নিজস্ব ভিটেমাটিতে দাঁড়িয়ে স্বতন্ত্র ও স্বাদু ভঙ্গিমায় সাহিত্য রচনায় নিমগ্ন র‍্যেছেন যুগাধিকাল। স্বদেশ-সমকালের প্রেক্ষাপটে বসেই তিনি রচনা করেন এমন এক প্রতিবেশ পৃথিবী যেখানে মানুষ ও তার আর্থ-সামাজিক জীবনের নানা ক্ষরন উদ্ভাসিত হয়ে ওঠে- বোধ ও উপলব্ধির অনন্য শৈলীতে। তাঁর এই সব শব্দ তারই মতো বড্ড সরল নীরিহ কখনওবা প্রতিবাদী এক সাববলিল ভঙ্গিমা যেন তার করায়ত্ব, ফলে অনেক সাধারণ কথাও হয়ে ওঠে তাঁর মননস্পর্শে।
নেশা লেখালেখি হলেও পেশায় তিনি একজন সরকারি কর্মকর্তা । ১৯৭৬ সালে বেতার উপস্থাপক হিসাবে তাঁর কর্মজীবনের শুরু এবং ১৯৭৯ সালে সিনিয়র প্রযোজক পদে বাংলাদেশ বেতার চট্টগ্রাম কেন্দ্রে যোগদান করেন।

বলাকা প্রকাশনঃ

লোককাহিনী প্রতিভাবান প্রাচীন লোকদের অনুপম সাহিত্য সৃষ্টি, যা অলিখিত এবং চারণ কবিদের মুখে মুখে মাটি ও মানুষের হৃদয়ের গভীরে মুদ্রিত থাকে। লোককাহিনী সাহিত্যের একটি অঙ্গ বলেই একটা জাতির প্রাচীন সভ্যতা ও জীবন সংস্কৃতির প্রতিচ্ছবি এতে প্রতিফলিত হয়। আর তাই লোককাহিনী আদি মানুষের সংস্কৃতির একটা ধারক বাহকও বটে।
ত্রিপুরা জনজাতির বৈচিত্র্যময় জীবন সংস্কৃতির অঙ্গনে লোককাহিনী একটি বিশিষ্ট স্থান দখল করে আছে। ত্রিপুরা জনগোষ্ঠীর হাজার হাজার বছরের ইতিহাস, সভ্যতা, জীবনবোধ ও কৃষ্টিতে লোককাহিনী আপন মহিমায় উদ্ভাসিত।
লোককাহিনীতে উত্তরসুরী প্রজন্ম তার পূর্বসুরীদের বিচিত্র জীবনের সুখ-দুঃখ এবং জীবনবোধের চিত্র খুঁজে পায়। বলাবাহুল্য, ত্রিপুরাদের জাতীয় জীবনে প্রচলিত রয়েছে অজস্র লোককাহিনী। এসব লোককাহিনী উপযুক্তভাবে সংগ্রহ ও সংরক্ষণের অভাবে সাহিত্য অঙ্গন থেকে সবার অজান্তে হারিয়ে যাচ্ছে এবং কোন না কোন কূলে ভিড়ে গিয়ে কলেবর বৃদ্ধি করছে।
আমি এ গ্রন্থের স্বল্প পরিসরে ত্রিপুরা জনজীবনে প্রচলিত কিছু লোককাহিনী প্রবীণ ব্যক্তিদের কাছ থেকে যেভাবে জেনেছি ও শুনেছি সেভাবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করেছি। এখানে মজার ব্যাপার হলো, বর্ণিত লোককাহিনীগুলোতে কিন্তু স্থান, কাল, পাত্রও উল্লিখিত হয়েছে, যা কোন কোন ক্ষেত্রে ইতিহাসের তথ্য ও উপাত্তের উপাদান বলে বিবেচিতও হতে পারে। যা হোক Ñ আমার এ ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা সুহৃদ পাঠক মহলে কিঞ্চিৎ সমাদৃত হলে শ্রম সার্থক বলে বিবেচিত হবে।
প্রভাংশু ত্রিপুরা

খাগড়াপুর, খাগড়াছড়ি

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “ত্রিপুরা লোককাহিনী”

Your email address will not be published. Required fields are marked *