কয়েদির চিঠি

পরিশেষে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি আমার বন্ধু রাফিকে, যে তার ক্লাস ফেলে আমাকে নিয়ে আমার অচেনা শহরের গলিপথে ছুটতো প্রকাশনার কাজে। সেই সাথে আমার বড় দুলা ভাই আনিছুর রহমানের প্রতিও, যার উৎসাহ আমাকে তীব্র ভাবে অনুপ্রেরণা দিয়েছে। সবশেষে বলি বাবার কথা। যিনি তাঁর প্র-পিতামহের নিজ হস্তে লিখা পুঁথি চুরি হয়ে যাওয়ার অভিজ্ঞতা থেকে আমার এই উপন্যাস না পড়েই দ্রুত প্রকাশের জন্য আমাকে তাগাদা দিয়েছেন। সেই সাথে কৃতজ্ঞতা রইল সকল শিক্ষক, বন্ধু-বান্ধব, আতœীয়-স্বজন, ভাই-বোন এবং আমার সকল শুভাকাঙ্খী যারা আমাকে অনুপ্রেরণার মূলধন দিয়ে এই কাজে এগিয়ে যেতে সহযোগীতা করেছেন। তবুও আরেকজন রয়ে গেলেন। আমার মা, যিনি সকলের অলক্ষ্যে আমাকে টাকা দিয়ে শহরে পাঠাতেন প্রকাশনার কাজে।

৳ 200

About The Author

আহমদ উল্লাহ্ রাফি

আহমদ উল্লাহ্ রাফি

জন্ম ঃ ১৯৯৯ এর ১৬ ফেব্রুয়ারি , ফটিকছড়ি উপজেলার পাইন্দং গ্রামে।

পিতাঃ মাস্টার মুহাম্মদ সেকান্দর, ফটিকছড়ি করোনেশন আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সহকারী প্রধান শিক্ষক।

মাতাঃ সেলিনা আক্তার গৃহিণী।

পরিবারের ৩ ভাই ও ৩ বোনের মধয় সবার ছোট। তিনি "সৃজনশীল মেধা অন্বেশন" প্রতিজোগিতা ২০১৬ তে ভাষা অ সাহিত্যে নিজ উপজেলায় প্রথম হন। একাডেমিক ক্ষেত্রে জে এস সি ও এস এস সি তে স্কলারশীপ পেয়েছেন।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “কয়েদির চিঠি”

Your email address will not be published. Required fields are marked *